Maruf Ahmed Sumon

অবশেষে শুন্যপদের তালিকা সংগ্রহ শেষ হয়েছে।  NTRCA নি‌য়োগ দেওয়ার জন্য অাট‌ত্রিশ হাজার শূন্যপ‌দের চা‌হিদা পে‌য়ে‌ছে।

***********************
বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা) ৩৮ হাজার ৮০০টি শিক্ষকের শূন্য পদের তালিকা পেয়েছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের মাধ্যমে তালিকাটি আরেকবার যাচাই-বাছাই করে আগামী এক মাসের মধ্যে নিয়োগের সুপারিশ করা হবে।

এনটিআরসিএ সূত্র জানিয়েছে, আদালতের রায় ও বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিও নীতিমালা-২০১৮ অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে ৩৫ বছর বয়সসীমা নির্ধারণ করা হয়েছে জেলাভিত্তিক মেধা তালিকার পরিবর্তে এবার জাতীয় মেধা তালিকার মাধ্যমে নিয়োগের সুপারিশ করা হবে। ফলে এক জেলার নিবন্ধিতরা অন্য জেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সুযোগ পাবেন।

এক নজরে দেখে নেই কারা কারা বাদ পড়বেন।

১। যাদের বয়স এই বৎসর ৩৫+ হয়েছে তারা নিয়োগ পাবেন না।

২। যারা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী অনলাইনে আবেদন করে রাখবেন না তারা পরবর্তীতে ৩৫+ হলে জটিলতায় পড়বেন।

৩। ১৪ তম প্রার্থীরা এই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির পর ফলাফল পাবেন। ১-১৩ তমদের নিয়োগ প্রক্রিয়ার জন্যই এই গণবিজ্ঞপ্তি হবে মুলত। তাই ১৪ তমদের এই নিয়োগে প্রবেশের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

৪। যাদের কোন সার্টিফিকেট জাল, তারা আবেদন না করলেও পারেন।  কারণ যাচাইয়ের পর আপনাদের নিয়োগ বাতিল হবে।

 

*** তাই গণবিজ্ঞপ্তি হলে এবং সে অনুযায়ী আপনার বয়স ৩৫ বছরের ভিতর হলে আবেদন করুন। ১-১৩ তমদের লম্বা তালিকা দেখে ঘাবড়ে যাওয়ায় কিছু নাই। এখানে অনেকের বয়স ৩৫+,  অনেকের অন্য কোথাও চাকুরী হয়ে গেছে। সুতরাং গণবিজ্ঞপ্তি হওয়ার পর নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই আবেদন করুন। এই নিয়োগে দেশের প্রায় ৯০% পদ পুর্ণ হয়ে যাবে। এর ফলে পরবর্তী নিবন্ধন পাশ করে নিয়োগ পাওয়া অনেক বেশি কম্পিটিটিভ হবে। আশা করি ১-১৩ তম নিয়ে আপনার প্রশ্নের জবাব আপনি পেয়েছেন।

 

ধন্যবাদ